সর্বশেষ

  চুয়াডাঙ্গায় মহিষের শিংয়ে প্রাণ গেল মালিকের   কুবিতে ভর্তির আবেদন ১ সেপ্টেম্বর   তিন দিনের সফরে ঢাকায় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী   ডেঙ্গুতে পাঁচ জেলায় আরও ৭ জনের মৃত্যু   বিয়ানীবাজার পৌরসভার উদ্যোগে যথাযথ মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালন   বিয়ানীবাজার উপজেলা প্রশাসনের জাতীয় শোক দিবস পালন   ঢাকা মেডিকেল এলাকায় এডিস মশার আবাসস্থল ধ্বংস করলো যুব ইউনিয়ন   এডিস মশা পানিতে ডিম পাড়ে না, জানালেন বিশেষজ্ঞ   রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ছাড়া সবাই রাষ্ট্রের চাকর: হাই কোর্ট   মুসলিমদের গরু কুরবানি দিতে নিষেধ করলেন মন্ত্রী!   বিনা পারিশ্রমিকেই খেলবে জিম্বাবুয়ের খেলোয়াড়রা   সিলেটেও ভয়ঙ্কর রূপ নিচ্ছে ডেঙ্গু, ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আক্রান্ত ৫৩ জন   সুপ্রিয় চক্রবর্তী রঞ্জু আর নেই   যার ফোনে ফেরি ছাড়তে দেরি তিনিই করলেন তদন্ত কমিটি!   মুসলিম নির্যাতনের প্রতিবাদ করায় সৌমিত্র-অপর্ণার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের মামলা

কৃষি

কুলাউড়ায় বসত বাড়িতে ফলজ বাগান করে সফলতার মুখ দেখেছেন এক যুবক

ময়নুল হক পবন,কুলাউড়া(মৌলভীবাজার):

প্রকাশিত : ২০১৭-০৮-১৯ ১৫:৪৭:০৫

কুলাউড়ায় বাড়ির আঙ্গিনায় প্রতিষ্টিত ফলজ বাগান



কুলাউড়ায় বসত বাড়িতে ফলজ বাগান করে সফলতার মুখ দেখেছেন এক যুবক। মাত্র ৩ বছর পূর্বে প্রতিষ্টিত ফলজ এ বাগানে এখন গাছে ধরেছে কমলা,মাল্টা,সৈয়দি পিয়ারা,সফেদা,বিলাতী আমড়া,ডালিম,বেলেম্বো,ল্যাংড়া আমসহ নানা প্রজাতীর ফল। বাড়ির আঙ্গিনায় খালি জায়গাকে কাজে লাগিয়ে এধরনের একটি বাগান সফলতার মূখ দেখায় ঐ যুবকের বাগান দেখতে বিভিন্ন গ্রামের লোকজন আসেন তরুন যুবক মজম্মিল এর বাড়িতে। অনেকে তার কাছে বাগান প্রতিষ্টার ব্যাপারে পরামর্শ নিয়ে তাদের আঙ্গিনায় বাগান প্রতিষ্টায় আগ্রহী হয়েছেন বলে জানা গেছে। নিজ উদ্যোগ ও নিজস্ব মেধা বুদ্ধি দিয়ে প্রতিষ্টিত অবস্থিত কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাও ইউনিয়নের কৌলা গ্রামে। 
সরেজমিনে গেলে কথা হয় বাগানের মালিক তরুন যুবক মজম্মিল আলীর সাথে। তিনি জানান, প্রথমে নিজের উদ্যোগে বাগানটি প্রতিষ্টা করি। পরে অবশ্য কৃষি বিভাগ পরামর্শ দিয়েছে। কিন্তু সরকারী কোন সাহায্য সহযোগীতা পাইনি। তিনি আরও বলেন, তার বাগানে রয়েছে কমলা, মাল্টা, সফেদা, বিলাতী আমড়া, চায়না পেয়ারা, সৈয়দী পিয়ারাসহ ৭ প্রজাতির পিয়ারা, ডালিম, বেলেম্বো, ল্যাংড়া আম, পেপে, ২ বছরী নারিকেল, জাম্বুরা, সাতকরা, আপেল, আঙ্গুর, বারমাসি আম, বুবি, কামরাঙ্গা ইত্যাদি প্রজাতীর ফলজ গাছ এবং ঔষধী প্রজাতির হরতকি, বহেড়া, অর্জূন, এওলা, কামরাঙ্গা ও বিভিন্ন প্রজাতীর ফুল। এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, প্রথমত আমার  শখ হলো বাগান করা। পরবর্তীতে আঙ্গিনা খালি পড়ে আছে। তাই আাঙ্গিনার খালি জায়গাকে কাজে লাগানোর জন্য এই ফলজ বাগানটি প্রতিষ্টা করেছি। তিরি বলেন, আমি অনেক কষ্ট করে চারা গুলি সংগ্রহ করে বাগান প্রতিষ্টা করেছি। এরপর বাগানে প্রচুর পরিশ্রম করতে হয়েছে ফল ধরাতে গিয়ে সার ওষুধ, ভিটামিন ইত্যাদির দাম চড়া হওয়ার কারনে অনেক কষ্টে টাকা ম্যানেজ করে বাগানের সফলতা এনেছি। ভবিষ্যত পরিকল্পনা হলো বৃহৎ পরিসরে আমি বাগান করতে চাই। এতে আমি চাই সরকারের সহযোগীতা। তিনি বলেন, কৃষি বিভাগ মেলায় আমার বাগানের উৎপাদিত ফল নিয়ে বৃক্ষ মেলায় প্রদর্শন করে কিন্তু আমাকে কোন সার্টিফিকেট দেয়না। তাই আমার মনে করি কাজের স্বীকৃতি দেওয়া হলে আমি আরও উৎসাহের সহিত কাজ এগিয়ে নিতে পারব। 



শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF


মতামত দিন

Developed By -  IT Lab Solutions Ltd. Helpline - +88 018 4248 5222