সর্বশেষ

  কবি হেলাল হাফিজ হাসপাতালে   সিলিং ফ্যানের দাম এক লাখ টাকা!   শুনতে কি পাও কৃষকের কান্না   আজ রক্তে ভেজা ২০ মে : মহান চা-শ্রমিক দিবস   একটি অন্য রকম প্রতিবাদ   হুয়াওয়ের শীর্ষে পৌঁছানোর স্বপ্ন গুড়িয়ে দিলো গুগল?   মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই ছয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মী; হতাশ বিশ্বজিতের পরিবার   বুধবার থেকে পাটকল শ্রমিকদের ৬ ঘণ্টা সড়ক-রেলপথ অবরোধ   সাগরে যাবে বিয়ানীবাজারের দুই শতাধিক তরুণ   র‍্যাবের অভিযানে বিয়ানীবাজার দু'জন গ্রেফতার   ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে কেন এই রক্তারক্তি   ৯৫ ভাগ জাতীয় আয় চলে যাচ্ছে ৫ ভাগ মানুষের হাতে   যুক্তরাষ্ট্রের চেয়েও খরচ বেশি বাংলাদেশের শিক্ষায়   হাজী আব্দুস সাত্তার শপিং কমপ্লেক্স মালিকপক্ষে'র ইফতার সামগ্রী বিতরণ   অনন্ত হত্যার বিচার বিশেষ ট্রাইব্যুনালে করার দাবি

বিয়ানীবাজার

গ্রামবাসীর অর্থায়নে শহিদটিল্লা থেকে বড়দেশ রাস্তা সংস্কা্রের কাজ চলছে

প্রকাশিত : ২০১৯-০৪-১৬ ১৯:৩০:৩৭

রিপোর্ট : নিজস্ব প্রতিবেদক


পৌরশহরের শহীদ টিলা থেকে বড়দেশ গ্রাম পর্যন্ত আড়াই কিলোমিটার রাস্তার পিচ ঢালাই করছে গ্রামবাসী। পাকা করা এ রাস্তাটি ভেঙে চলাচল অনুপযোগি হয়ে পড়ে আড়াই বছর আগে। সরকারের কোনো প্রকল্পের দ্বারা কাজ না হওয়ায় এলাকার মানুষজন মিলে চাঁদা তুলে মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) থেকে প্রাস্তার পিচ ঢালাইয়ের কাজ শুরু করে।


বিয়ানীবাজার পৌরসভার আংশিক ও মুড়িয়া ইউনিয়নের বড়দেশ গ্রামের রাস্তা এটি। গত আড়াই বছর আগে রাস্তাটিতে পাকার কাজ করা হয়। ঠিকাদারের অনিয়মের কারণে তা ভেঙে যায়। রাস্তার পিচ উঠে মাটি বেরিয়ে পড়ে। বৃষ্টি হলে রাস্তার গর্তে পানি জমে চলাচল অনুপযোগি হয়ে যায়। এমতাবস্থায় গত বছর স্থানীয় মেম্বার গর্তে ইট দিয়ে চলাচল উপযোগি করলেও পরে আবার রাস্তাটি খানাখন্দে ভরে উঠে। এ নিয়ে গ্রামবাসী বিয়ানীবাজার পৌরসভা ও সংশ্লিষ্টদের কাছে রাস্তা সংস্কারের দাবি তুলেন। 

এতে কাজ না হওয়াতে বড়দেশ গ্রামের মখলিছুর রহমান, হাজী আলা উদ্দিন, ফয়সল আহমদ খান, আব্দুল বাসিত খান সাজুসহ অনেকে মিলে গ্রাম থেকে চাঁদা তুলে রাস্তা পাকা করণের উদ্যোগ নেন। এতে সহযোগিতা করে যুক্তরাজ্যস্থ বড়দেশ সমাজ কল্যাণ সমিতি।

স্থানীয়রা জানায়, গ্রামবাসীর টাকায় পাথর, বিটুমিনসহ নির্মাণ সামগ্রী এনে রাস্তা পাকার কাজ শুরু করা হয়। ভাড়ায় রোলার আনা হয় পৌরসভা থেকে। শফিউর রহমান বলেন, আড়াই কিলোমিটার রাস্তা পাকা করতে ব্যয় ধরা হয়েছে সাড়ে তিন লাখ টাকা। প্রবাসী সহযোগিতায় ও গ্রাম থেকে চাঁদা তুলে এ কাজ করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF


মতামত দিন

Developed By -  IT Lab Solutions Ltd. Helpline - +88 018 4248 5222