সর্বশেষ

  জগন্নাথপুরে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিল সোনার বাংলা সমাজ কল্যাণ সংস্থা   আশারআলো ফাউন্ডশনের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ   জুড়ীতে আদালতের নির্দেশে মৃত্যুর ১৮দিন পর ধনমিয়ার লাশ উত্তোলন   ক্যাসিনো থেকে মাসে ১০ লাখ টাকা নিতেন মেনন   ভারতের সঙ্গে চুক্তি বাতিল, আবরার সহ সকল হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে প্রগতিশীল সংগঠনসমূহের বিক্ষোভ সমাবে   বিয়ানীবাজারে নিসচা'র সড়ক দূর্ঘটনা রোধে করণীয় শীর্ষক মতবিনিময় সভা ও অভিষেক অনুষ্ঠিত   ৫ দফা দাবীতে বিয়ানীবাজারে ফারিয়া'র মানববন্ধন   লক্ষীপুরে ছাত্রলীগে পদ পেতে লিখিত পরীক্ষা, ডোপ টেস্ট   ভারী অস্ত্রসহ ভাইরাল ছাত্রলীগ কর্মী   ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৫০, আটক ৩   কুষ্টিয়ায় চাঁদাবাজি মামলায় ছাত্রলীগ আহ্বায়ক গ্রেফতার   বালিশকাণ্ডের দায় মন্ত্রণালয়ও এড়াতে পারে না: আইইবি সভাপতি   ঢাবির ‘ক’ ও ‘চ’ ইউনিটের ফল রোববার   শ্রীমঙ্গলে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে চার ভুয়া সাংবাদিক আটক   মানসিকভাবে দুর্বল তরুণরাই জঙ্গিবাদে ঝুঁকছে : মনিরুল

বিয়ানীবাজার

বিয়ানীবাজারে গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা!

বিয়ানীবাজারে রাতের আঁধারে একটি বসতবাড়ির ১৫টি ফলদ গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতের কোনো এক সময় উপজেলার পূর্ব মুড়িয়ার বড়উধা (মাইজকাপন) গ্রামের প্রবাসী মো. আব্দুল জব্বারের নির্মাণাধীন বসতবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

প্রকাশিত : ২০১৯-০৯-১৬ ১৫:৩৯:৫৯

রিপোর্ট : Dibalok Reporter


ক্ষতিগ্রস্থ প্রবাসী মো. আব্দুল জব্বার বলেন, আমি দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে প্রবাসে আছি। দেশে খুব কমই আসি। বিদেশ থেকেই নতুন বসতবাড়ি নির্মাণের কাজ করে যাচ্ছি। এবার বাড়ির কাজ শেষ পর্যায়ে এবং শীঘ্রই বাড়িতে উঠবে বলো দেশে আসি। কিন্তু শনিবার সকাল ৯টার দিকে খবর পাই- আমার নতুন বাড়ির প্রায় ১৫টি ফলদ গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। খবর পেয়ে দেখতে যাই। গিয়ে দেখি ১টি লিচু, ৪টি নারিকেল, ১টি বড়ই, ৬টি সুপারি ও ২টি কাঁঠাল গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। এ রকম গাছ কেটে ফেলার ঘটনা আগেও এখানে ৪ বার ঘটেছে। ৫ম বারের মতো এ রকম ঘটনা হওয়ায় আমি ও আমার পরিবার পুরোপুরিভাবে ভীতগ্রস্থ হয়ে পড়েছি। এ অবস্থায় আমার ৩য় শ্রেণির এক ছেলে ও ৩ কিশোরীকে নিয়ে ভীষণ সমস্যায় আছি। এখন নতুন বাড়িতে বসবাস করতে ভয় পাচ্ছি। ভবিষ্যতে আমার পরিবারের উপর প্রাণঘাতী হামলার ঘটনার আশঙ্কা করছি।তিনি আরো বলেন, ৪ বারই এ রকম ঘটনা ঘটার পরেও আমি পরিবারের যাতে কোনো ক্ষতি না হয়- সে দিকে চেয়ে আইনী ব্যবস্থায় যাইনি। এবার বিষয়টি আমি এলাকার দায়িত্বশীল ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আলী আহমদকে জানাই। তাদের পরামর্শপূর্বক আমি আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্থের ভাতিজা ছিদ্দিক আহমদ, বারবার আমার চাচার সাথে দুশমনি করা হচ্ছে। চাচার সাথে দুশমনি মানে আমাদের সাথেও দুশমনি হচ্ছে একই কথা। এ রকম ঘটনা আর যাতে না ঘটে তাই জনগন ও প্রশাসনের কাছে জোড়ালো দাবি জানাচ্ছি।
ক্ষতিগ্রস্থের প্রতিবেশী মোছাদ্দিক তাপাদার কাশেম বলেন, প্রতিবেশীর উপর এ রকম বারবার ঘটনা- আমাদেরকে ভীতগ্রস্থ করেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে এলাকাবাসীর সহযোগিতা চাচ্ছি।
মুড়িয়া ইউপি সদস্য আলী হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনা স্থান পরিদর্শন করতে যাই। পরিদর্শনে ফলদ গাছ কেটে ফেলার বিষয়টি আমাকে কষ্ট দিয়েছে। আমরা এ কাজের মূল হোতাকে বের করতে পারলে যথাযথভাবে আইনী প্রক্রিয়ায় আমি সর্বাত্মক সহযোগিতা করব।
এদিকে, সরেজমিনে গিয়ে ফলদ গাছসমূহ কেটে ফেলার সত্যতা খুঁজে পেয়েছেন এ প্রতিবেদক।

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF


মতামত দিন

Developed By -  IT Lab Solutions Ltd. Helpline - +88 018 4248 5222