সর্বশেষ

  জগন্নাথপুরে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিল সোনার বাংলা সমাজ কল্যাণ সংস্থা   আশারআলো ফাউন্ডশনের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ   জুড়ীতে আদালতের নির্দেশে মৃত্যুর ১৮দিন পর ধনমিয়ার লাশ উত্তোলন   ক্যাসিনো থেকে মাসে ১০ লাখ টাকা নিতেন মেনন   ভারতের সঙ্গে চুক্তি বাতিল, আবরার সহ সকল হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে প্রগতিশীল সংগঠনসমূহের বিক্ষোভ সমাবে   বিয়ানীবাজারে নিসচা'র সড়ক দূর্ঘটনা রোধে করণীয় শীর্ষক মতবিনিময় সভা ও অভিষেক অনুষ্ঠিত   ৫ দফা দাবীতে বিয়ানীবাজারে ফারিয়া'র মানববন্ধন   লক্ষীপুরে ছাত্রলীগে পদ পেতে লিখিত পরীক্ষা, ডোপ টেস্ট   ভারী অস্ত্রসহ ভাইরাল ছাত্রলীগ কর্মী   ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৫০, আটক ৩   কুষ্টিয়ায় চাঁদাবাজি মামলায় ছাত্রলীগ আহ্বায়ক গ্রেফতার   বালিশকাণ্ডের দায় মন্ত্রণালয়ও এড়াতে পারে না: আইইবি সভাপতি   ঢাবির ‘ক’ ও ‘চ’ ইউনিটের ফল রোববার   শ্রীমঙ্গলে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে চার ভুয়া সাংবাদিক আটক   মানসিকভাবে দুর্বল তরুণরাই জঙ্গিবাদে ঝুঁকছে : মনিরুল

খেলাধুলা

বিপ টেস্টে ফেল আশরাফুল-রাজ্জাকরা

প্রকাশিত : ২০১৯-১০-০১ ২২:৪৪:০১

রিপোর্ট : দিবালোক ডেস্ক

ক’দিন ধরে দেশের ক্রিকেটে সবচেয়ে আলোচিত বিষয়টির নাম বিপ টেস্ট। জাতীয় ক্রিকেট লিগ শুরু হচ্ছে ১০ অক্টোবর থেকে। তার আগে ক্রিকেটারদের ফিটনেসে জোর নজর বাংলাদেশে ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি)।

ঘরোয়া এই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে খেলার সুযোগ পেতে বিপ টেস্টে ১১ পাওয়ার সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছিল বিসিবি। মঙ্গলবার ছিল সেই আলোচিত বিপ টেস্টের প্রথম পর্ব। ঢাকাসহ বেশ দেশের বেশ কয়েকটি ভেন্যুতে নেওয়া হয়েছে ৮ বিভাগের ক্রিকেটারদের ফিটনেস টেস্ট।

যেখানে অনেক ক্রিকেটার ১১-এর সীমা উতরে গেলেও পারেননি বেশ কিছু তারকা ক্রিকেটার। যাদের মধ্যে আছেন মোহাম্মদ আশরাফুল, আবদুর রাজ্জাক, নাসির হোসেনের মতো ক্রিকেটার।

আশরাফুল বিপ টেস্টে পেয়েছেন ৯.৭। ৩৭ পেরোনো অভিজ্ঞ আবদুর রাজ্জাকের স্কোর- ৯.৬। অর্থাৎ ১০ ও পাননি তারা। নাসির হোসেন, ইলিয়াস সানিদের চিত্রটাও একই।

এদিকে বিপ টেস্টে ক্রিকেটারদের ফিটনেসে সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন। মিরপুরে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার মনে হয় যে যাই বলুক খেলোয়াড়রা এটি খুব ইতিবাচকভাবে নিয়েছে। এটা খেলোয়াড়দের জন্যই ভালো, সবাই তা উপলব্ধি করতে পেরেছে। এই কারণে আমি খুবই খুশি।’

‘ঢাকার বাইরের ফলাফল আমরা এখনো হাতে পাইনি। তবে ঢাকাতে এখন পর্যন্ত প্রায় ৯৬ ভাগ পাশ করে গেছে। যে লক্ষ্যটা দেওয়া হয়েছিল সেটা পূরণ করতে পেরেছে।’

অভিজ্ঞ ও পারফরমারদের ক্ষেত্রে এই পরীক্ষায় কিছুটা ছাড় দেওয়ার কথা জানানো হয়েছিল আগের দিন। এদিন হাবিবুল বললেন, যারা নির্দিষ্ট সীমায় পৌঁছাতে পারেননি তাদের সামনে সুযোগ থাকছে একাধিকবার বিপ টেস্ট দেওয়া।

সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা কিন্তু এটা বলেছি যে যদি কেউ পূরণ করতে না পারে আমরা দ্বিতীয়বার, তৃতীয়বার, চতুর্থবার নেব। সুযোগটা থাকবে ওই পর্যায়ে আসার। আমরা একটা স্ট্যান্ডার্ড অনুসরণ করার চেষ্টা করছি, সংস্কৃতি তৈরি করার চেষ্টা করছি। আমি আশা করছি সবাই এটা বুঝতে পারবে। আমার খেলোয়াড়রা বুঝতে পেরেছে তো আমি খুবই খুশি।’

শেয়ার করুন

Print Friendly and PDF


মতামত দিন

Developed By -  IT Lab Solutions Ltd. Helpline - +88 018 4248 5222