আজ সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯ ইং

খেলাধুলা

দিবালোক ডেস্ক

০৬ নভেম্বর, ২০১৯ ২১:৫১

রাজকোটে ১৭০ প্লাস রান চায় বাংলাদেশ

দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে ব্যাটসম্যানদের বেশ সংগ্রাম করতে হয়েছে। বোলারদের কার্যকারিতা চোখে পড়েছে স্পষ্টভাবেই। যদিও রাজকোটের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ব্যাটিং সহায়ক উইকেটের প্রত্যাশা দুই দলের অধিনায়কের। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর আশা, আগে ব্যাট করলে ১৭০ প্লাস রান হবে এই পিচে।




আজ (বুধবার) সংবাদ সম্মেলনে ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা জানিয়েছেন, রাজকোটের উইকেটে হবে ব্যাটিং সহায়ক। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহও বললেন একই কথা, ‘এখানকার ট্র্যাক রেকর্ড বলছে, ব্যাটিংয়ের জন্য এটা খুব ভালো উইকেট হবে। আশা করছি আমরা ১৭০ প্লাস রান করতে পারব, তবে খেলায় নামার আগে আমাদের আগে উইকেট ঠিকঠাক মূল্যায়ন করতে হবে।’



দিল্লির ম্যাচ দিয়ে জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছে মোহাম্মদ নাঈমের। ওপেনিংয়ে নেমে ২০ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান খেলেছেন ২৬ রানের সময় উপযোগী ইনিংস। আরেক তরুণ অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন ব্যাটিংয়ে নামার সুযোগ না পেলেও বল হাতে ৩ ওভারে মাত্র ১১ রান দিয়ে পান ১ উইকেট। তরুণ ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্সে ভীষণ খুশি মাহমুদউল্লাহ।



তিনি বলেছেন ‘ওরা প্রমাণ করেছে, একাদশে থাকার সামর্থ্য তাদের খুব ভালো মতোই আছে এবং তারা (একাদশে) জায়গার দাবিদার। আশা করছি ওরা যেভাবে শুরু করেছে, সে ভাবেই এগিয়ে যাবে।’



প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বোলিংয়ে বেশ ভুগতে হয়েছে ভারতকে। দুই স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহাল ও ওয়াশিংটন সুন্দর ছাড়া কেউই সুবিধা করতে পারেননি। ইনজুরিতে নেই দলের দুই সেরা পেসার ভুবনেশ্বর কুমার ও জসপ্রিৎ বুমরাহ। এরপরও ভারতীয় বোলারদের সমীহ করছেন মাহমুদউল্লাহ।



ভারতের বোলিং আক্রমণ নিয়ে এই ব্যাটসম্যানের বক্তব্য, ‘ওদের বোলিংয়ে অনেক বৈচিত্র্য। ভালো মানের স্পিনারের সঙ্গে রয়েছে দারুণ সব ফাস্ট বোলার। টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতায় তাদের বোলিং লাইন-আপ খুব ভালো। তাদের বিপক্ষে মোমেন্টাম ধরে রাখতে হলে প্রথম বল থেকেই আমাদের সেরাটা দিতে হবে।’



আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-ভারত। দিল্লির প্রথম ম্যাচ জেতায় তিন ম্যাচের সিরিজে বাংলাদেশ ১-০তে এগিয়ে। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি নাগপুরে।

শেয়ার করূন

আপনার মতামত