আজ শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

সিলেট

নিজস্ব প্রতিবেদক

০২ জুলাই, ২০১৯ ১৪:১৪

অনন্ত বিজয় হত্যা: স্বাক্ষ্য দিলেন ভাই-বোনসহ ৭জন


বিজ্ঞান লেখক ও ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশ হত্যার চার বছর পর এই হত্যা মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয়েছে। সোমবার চাঞ্চল্যকর এই মামলায় আদালতে স্বাক্ষ্য প্রদান করেন মামলার বাদী ও অনন্ত'র ভাই রত্নেশ্বর দাশ, দুই বোনসহ ৭ জন। 

সোমবার (১ জুলাই) দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মমিনুন্নেছা ৭ জনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ করেন। আগামী ১ আগস্ট স্বাক্ষ্য গ্রহণের পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করেন তিনি। মামলায় বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মনির উদ্দিন বলেন, মামলার বাদী, অনন্তের ভাই রত্নেশ্বর দাশ আগের তারিখেই স্বাক্ষ্য প্রদান করেছিলেন। আজ তাঁর জেরা সম্পন্ন হয়। এছাড়া আজ অনন্তর দুই বোন পঞ্চতমা  ও পূরবী দাশ, পুলিশ কর্মকর্তা নুরুল আলম ও শফিকুল ইসলাম এবং শেখ ইয়াসিন ও শেখ জামাল নামে দু'জন স্বাক্ষ্য প্রদান করেন।
ইয়াসিন ও জামালের বাসায় ভাড়া থাকতেন এই মামলার আসামী মান্নান হীরা ও আবুল খায়ের।
প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ১২ মে সকাল সাড়ে ৮টায় সিলেট নগরীর সুবিদবাজার এলাকার নূরানি আবাসিক এলাকায় অনন্ত বিজয় দাশকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। তিনি সুবিদবাজারের বনকলাপাড়ার নূরানি এলাকার ১২/১৩ নম্বর বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে বসবাস করতেন। ঘটনাস্থল থেকে অনন্তর বাড়ি ৩০ থেকে ৪০ গজ দূরে। সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করেন অনন্ত বিজয়। এরপর কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন পূবালী ব্যাংকে। সিলেটের জাউয়াবাজারে অবস্থিত পূবালী ব্যাংক শাখায় কর্মরত ছিলেন।

এ হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে অজ্ঞাত পরিচয় ৪ জনকে আসামি করে অনন্ত বিজয় দাশের বড়ভাই রত্নেশ্বর দাশ বাদী হয়ে সিলেট বিমানবন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। প্রথমে পুলিশ তদন্ত করলেও পরে মামলাটির তদন্তভার সিআইডি’র অর্গানাইজড ক্রাইম বিভাগকে দেওয়া হয়। আনসার বাংলা ৮ নামের একটি সংগঠন এই হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে।



শেয়ার করূন

আপনার মতামত